কবিতা

ভণ্ড বাবার মূর্খ ছাওয়া – রফিক মোহাম্মদ

ভণ্ড বাবার মূর্খ ছাওয়া
রফিক মোহাম্মদ

কী নেকিম মুই কনতো বাহে
কী আর হইবে কয়া
মোর নেকা যে হয় না ভালো
জানোং সৌগ হয় বয়া।

চেষ্টা করোং—-সত্য কবার
যত্ কোনা পাও কং
যার পাকে যায় কতাগুল্যা
তার মেজাজ হয় টং।

জ্বলি ওটে শোনার সাতে
ফিকিয়া হয় ঢোল
ভণ্ড বাবার—মূর্খ ছাওয়া
নাগায় গন্ডগোল!

দেওয়ানবাগীর–প্যাড্ডা চাজি
আর ওই সুরেশ্বরী
সোন্দাইছে মোর ইউনিয়্যানোত
এ্যকনা এ্যকনা করি!

লোব দ্যাকেয়া দলোত ঢুক্যয়
জয়গুরু ডাক পাতে
নাইগব্যার নয়—-ওযা নামায
জান্নাত ওমার হাতে!

সাদা মাইসের ঈমান খাইছে
আল্লাক দেচে ভোলে
হক্ক পন্থী—–মানুস দ্যাকলে
মিছ্যাও আঙুল তোলে।

যুক্তি দিয়্যা——চলি ওমরা
ধর্ম খাইচে ব্যাচে
ইবলিশ শয়তান সৌগ্গুল্যাকে
ধচ্চে বাহে প্যাঁচে।

কিছু শব্দার্থ………………..

নেকিম> লেখব
কয়া >বলে
মোর নেকা>আমার লেখা
জানোং >জানি
সৌগ> সব
বয়া >অসুন্দর

করোং>করি
যত্ কোনা> যতটুকু
পাও কং >পাই বলি
পাকে >দিকে
মেজাজ হয় টং> মেজাজ খারাপ
ওটে>ওঠে
সাতে> সাথে
ছাওয়া>সন্তান
নাগায় >লাগায়
প্যাড্ডা> ভুড়িওয়ালা
চাজি>চাচা
সোন্দাইছে >ঢুকেছে
মোর ইউনিয়্যানোত >আমার ইউনিয়নে
এ্যকনা>একটু
লোব দ্যাকেয়া > লোভ দেখিয়ে
ঢুক্যয়>ঢুকায়
নাইগব্যার নয়> লাগবে না
ওযা> রোযা
দেচে> দিয়েছে
দ্যাকলে>দেখলে
মিছ্যাও> মিছে
ওমরা>ওরা
ব্যাচে> বিক্রি করা
সৌগ্গুল্যাকে>সবাইকে

Related Articles

Leave a Reply

Close